নতুনদের জন্য ফ্রিল্যান্সিং-আউটসোর্সিং বিষয়ে কিছু প্রয়োজনীয় টিপস – | টেকএলার্মবিডি।সবচেয়ে বড় বাংলা টিউটোরিয়াল এবং ব্লগ
Profile
তানহাজ ইসলাম

মোট এলার্ম : 22 টি

তানহাজ ইসলাম

আমার এলার্ম পাতা »

» আমার ওয়েবসাইট :

» আমার ফেসবুক :

» আমার টুইটার পাতা :


স্পন্সরড এলার্ম



নতুনদের জন্য ফ্রিল্যান্সিং-আউটসোর্সিং বিষয়ে কিছু প্রয়োজনীয় টিপস –
FavoriteLoadingপ্রিয় যুক্ত করুন
Share Button

ফ্রিল্যান্সিং-আউটসোর্সিং বিষয়ে কিছু প্রয়োজনীয় টিপস –
আজ বাংলাদেশে ব্যাপক জনপ্রিয় ওডেস্ক নিয়ে আলোচনা করা হল—

ওডেস্ক হচ্ছে একটি ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস যেখানে সারা পৃথিবী থেকে প্রায় ১ লক্ষ ফ্রিল্যান্সার কাজ করছে। এই মূহুর্তে ওডেস্কে চার হাজারের উপর কাজ রয়েছে। সাইটটিতে প্রতিটি প্রজেক্টের জন্য “একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ মূল্য” হিসেবে অথবা “প্রতি ঘন্টv কাজের জন্য অর্থ” উভয় প্রকারের কাজ পাওয়া যায়। তবে ঘন্টা হিসেবে কাজের জন্য ওডেস্ক বেশি জনপ্রিয়। এই পদ্ধতিতে কাজ করে তুলনামূলকভাবে অন্য ফ্রিল্যান্সিং সাইটগুলো থেকে বেশি অর্থ উপার্জন করা সম্ভব। ওডেস্ককে আপনি একটি ভার্চুয়াল অফিসের সাথে তুলনা করতে পারেন, যেখা‡ন আপনি একটি নির্দিষ্ট সময়ে ইন্টারনেটে উপস্থিত থেকে কাজ করবেন। ওই সময়ে আপনার কি কি কাজ করছেন তা আপনার চাকুরীদাতা (বায়ার) – এর কাছে একটি নির্দিষ্ট সময় পর পর স্কিনশটের মাধ্যমে রিপোর্ট পৌছে যাবে। আপনি যতক্ষণ কাজ করবেন ঠিক ততটুকু মূল্য আপনাকে পরিশোধ করা হবে। অwZwi³ সময় কাজ করলে তার মূল্যও আপনি পাবেন। কমিশন হিসেবে এই সাইটের চার্জ হচ্ছে মোট মূল্যের ১০%|
বর্তমানে ওডেস্ক আমাদের দেশী প্রভাইডারদের মধ্যে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। সাইটিতে এই মূহুর্তে এক হাজারের উপর বাংলাদেশী প্রভাইডার রেজিষ্ট্রেশন করেছেন যাদের মধ্য অনেকেই ৫০০ ঘন্টার উপর কাজ করে ওডেস্ক থেকে অর্থ উপার্জন করেছেন। সাইটে রয়েছেন ডাটা এন্ট্রে অপারেটর, সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট কনসাল্টেনট, প্রোগ্রামার, ওয়েবসাইট ডেভেলপার, লেখক ইত্যাদি পেশার বাংলাদেশী প্রোভাডার। আশা করা যায় বেকার সমস্যায় জর্জরিত বাংলাদেশের তরুন সমাজ ওডেস্কের মত সাইটগুলোকেই একসময় তাদের ভার্চুয়াল অফিস হিসেবে বাছাই করে নিবে।

ওডেস্কে প্রোভাইডার হিসেবে রেজিষ্ট্রেশন
প্রোভাডারদের জন্য এই সাইটে দুই ধরনের ইউজার একাউন্ট রয়েছে। একটি হচ্ছে ফ্রিল্যান্সার প্রোভাইডার এবং অপরটি হচ্ছে প্রোভাইডার কোম্পানি। স্বতন্ত্রভাবে কাজ করতে প্রথমটি সিলেক্ট করুন। আপনvর ব্যক্তিগত তথ্য দিয়ে রেজিষ্ট্রেশনের ধাপটি সম্পন্ন করুন। সফলভাবে রেজিষ্ট্রেশন করার পর একটু সময় নিয়ে আপনার প্রোফাইল তৈরি করুন। একজন প্রোভাইডারের প্রোফাইল কয়েকটি ভাগে বিভক্ত:
• My Account Summary: এই অংশে আপনার ব্যক্তিগত তথ্য, প্রতি ঘন্টা কাজের জন্য আপনি কত মূল্য পেতে ইচ্ছুক এবং সপ্তাহে কত ঘন্টা কাজ করতে পারবেন তা উল্লেখ করুন। ওডেস্কে কাজ শুরু করার পূর্বে আপনাকে একটি Readiness Test দিতে হবে। রেডিনেস টেস্ট হচ্ছে একধরনের পরীক্ষা যার মাধ্যমে যাচাই করা হয় আপনি সাইটের সকল পলিসি ঠিকমত বুঝতে পেরেছেন কি না। পরীক্ষা দেবার জন্য Take the oDesk Readiness Test লিংকটিতে ক্লিক করুন। পরীক্ষায় এক ঘন্টা সময়ের মধ্যে 11wU প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে এবং উত্তীর্ণ হতে শতকরা 100 ভাগ প্রশ্নের সঠিক উত্তর দিতে হবে। পরীক্ষাটি হবে “ওপেন বুক” পদ্ধতিতে অর্থ¨vr সমাধানের জন্য সাইট কর্তৃক প্রদত্ত্ব বিভিন্ন ধরনের ম্যানুয়ালের সাহায্য নিতে পারবেন। তাই পরীক্ষার পূর্বে ম্যানুয়ালগুলো ভাল করে পড়ে নিন।
• Portfolio Projects: আপনি অতীতের সম্পন্ন কাজের বিস্তারিত বর্ণনা, ছবি এবং এটাচমেন্ট এই অংশে দিতে পারবেন।
• Employment History: কোন কোম্পানিতে আপনার কাজের অভিজ্ঞতা থাকলে এই অংশে দিতে পারবেন।
• Education: এই অংশে আপনার শিক্ষাগত যোগ্যতা উল্লেখ করুন।
• Certifications: এই অংশে আপনি যেসব টেস্টে উত্তীর্ণ হয়েছেন তার ফলাফল উল্লেখ করুন।
• Skills: বিভিন্ন ক্ষেত্রে আপনার দক্ষতার বর্ণনা এই অংশে উল্লেখ করুন।
• Categories & Job Alerts: ওডেস্কে যে ধরনের কাজ করতে চান তা উল্লেখ করুন।
• Other Experiences: আপনার অন্য কোন অভিজ্ঞতা এই অংশে উল্লেখ করতে পারেন।

ওডেস্কের বৈশিষ্ট্যসমূহ t
অনলাইন টেস্ট:
প্রোভাডারদের দক্ষতা প্রমাণের জন্য ওডেস্কে রয়েছে ১৫০ টির বেশি পরীক্ষা দেবার ব্যবস্থা। পরীক্ষাগুলো নৈর্ব্যw³ক পদ্ধতিতে অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। যেকোন সময় যেকোন পরীক্ষা দেয়া যায়। বেশি বেশি পরীক্ষা দিয়ে নতুন প্রোভাইডাররা তাদের প্রোফাইলকে আরো উন্নত করতে পারে। পরীক্ষা দেবার জন্য লগইন করার পর Find Providers ট্যাব থেকে Qualifications Tests লিংকটি সিলেক্ট করুন। প্রতিটি টেস্টে ৪০ টি প্রশ্ন থাকে এবং সময় থাকে ৪০ মিনিট। একই টেস্ট ইচ্ছে করলে ৩০ দিন পর পুনরায় দিতে পারবেন|

টিম ম্যানেজমেন্ট:
এই সাইটের মাধ্যমে একজন বায়ার একই প্রজেক্টে একসাথে অনেক প্রোভাইডারকে একটি নির্দিষ্ট সময়ের জন্য নিয়োগ দিতে পারে। টিম ম্যানেজ করার জন্য রয়েছে “টিম রুম” যেখানে বায়ার একসাথে সকল টিম মেম্বারদের বিভিন্ন তথ্য, কাজের ইতিহাস এবং সর্বশেষ অবস্থা পর্যবেক্ষণ করতে পারে। রয়েছে “টাইম এনালাইজার” যা কোন মেম্বার কখন এবং কত সময় ধরে কাজ করছে তা প্রদর্শন করে। বায়ারদের জন্য আরো রয়েছে প্রোভাইডারদের কম্পিউটারের স্ক্রিনশট দেখার ব্যবস্থা, ডেস্কটপ স্ক্রিন শেয়ারিং, বাগ ট্রেকিং এবং সাবভার্শন হোস্ট করার জন্য সার্ভার।
প্রোভাইডারদের জন্য সুবিধামূহ:
প্রোভাইডাররা তাদের কাজের দক্ষতা এবং বিশ্বস্ততা প্রমাণ করতে পারে তাদের কম্পিউটারে “oDesk Team” নামক একটি সফটওয়্যার ইন্টলেশনের মাধ্যমে। এই সফটওয়্যার একটি নির্দিষ্ট সময় পরপর ক্লায়েন্টের কাছে প্রোভাইডারের কাজের সর্বশেষ অবস্থা স্ক্রিনশট, কাজের মেমো, এক্টিভিটি লগ এবং ওয়েবক্যাম থাকলে ছবি প্রেরণ করে থাকে। ওয়েবক্যামের মাধ্যমে প্রোভাইডার ইচ্ছে করলে টিমের অন্যান্য মেম্বারদের সাথে যোগাযোগ করে কাজ করতে পারে। সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করতে Community ট্যাব থেকে Resources লিংকটি ক্লিক করুন। উইন্ডোজ, ম্যাক এবং লিনাক্স ইউজারদের জন¨ সফটওয়্যারটির আলাদা আলাদা ভার্সন রয়েছে।

অর্থ উত্তোলনের পদ্ধতিসমূহ:
অন্যান্য ফ্রিল্যান্সিং সাইটের মত ওডেস্ক থেকে অনেকগুলো পদ্ধতিতে অর্থ উত্তোলন করা যায়, যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে পেওনার ডেবিট মাস্টারকার্ড, মানিব্রোকারস এবং ওয়ার ট্রান্সফার। ডেবিট কার্ডের মাধ্যমে আপনি পৃথিবীর যেকোন স্থান থেকে অর্থ উত্তোলন করতে পারবেন। (651)

Share Button
  

FavoriteLoadingপ্রিয় যুক্ত করুন

এলার্ম বিভাগঃ ফ্রিলান্সিং

এলার্ম ট্যাগ সমূহঃ > >

Ads by Techalarm tAds

এলার্মেন্ট করুন

You must be Logged in to post comment.

© টেকএলার্মবিডি।সবচেয়ে বড় বাংলা টিউটোরিয়াল এবং ব্লগ | সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত

জেগে উঠো প্রযুক্তি ডাকছে হাতছানি দিয়ে!!!


Facebook Icon