আয় করুণ ইমেইল মার্কেটিং এর মাধ্যমে : সম্ভাবনাময় ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার!!! | টেকএলার্মবিডি।সবচেয়ে বড় বাংলা টিউটোরিয়াল এবং ব্লগ
Profile
তাহমিদ হাসান

মোট এলার্ম : 279 টি

তাহমিদ হাসান
দেখিতে গিয়াছি পর্বতমালা,,, দেখিতে গিয়াছি সিন্ধু,,, দেখা হয় নাই চক্ষু মেলিয়া,,, ঘর হতে শুধু দু’পা ফেলিয়া,,, একটি ধানের শীষের উপর একটি শিশির বিন্দু। !!!!!!!!! তাই টেকএলার্মবিডিতে এসেছি জানার জন্য।

আমার এলার্ম পাতা »

» আমার ওয়েবসাইট : http://www.graphicalarm.com

» আমার ফেসবুক : www.facebook.com/tahmid.hasan3

» আমার টুইটার পাতা : www.twitter.com/tahmid1993


স্পন্সরড এলার্ম



আয় করুণ ইমেইল মার্কেটিং এর মাধ্যমে : সম্ভাবনাময় ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার!!!
FavoriteLoadingপ্রিয় যুক্ত করুন
Share Button

ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসে প্রতিদিন জমা হচ্ছে অসংখ্য কাজ। দেখা যায় এসব কাজের মধ্যে অধিকাংশ কাজ পেতেই ফ্রিল্যান্সারদের তীব্র প্রতিদ্বন্দিতার সম্মুক্ষীণ হতে হয়।

তবে ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসে এমনও কাজ রয়েছে যেসব কাজের চাহিদা গগণচুম্বী; আবার কাজ পেতেও খুব বেশি প্রতিদ্বন্দিতার সম্মুক্ষীন হতে হয় না। এমনি একটি কাজ হচ্ছে ইমেইল মার্কেটিং। ইমেইল মার্কেটিং মূলত ডাইরেক্ট মার্কেটিং বা সরাসরি বিপণন ব্যবস্থা। এ কাজে প্রধানত বায়ারের উল্লেখিত কোন পন্য সম্পর্কে সুন্দর একটি বিবরণ তৈরী করে গ্রাহকদের নিকট ইমেইল করতে হয়। এর ফলে গ্রাহকগণ ঐ পন্য সম্পর্কে জানতে পারে। ফলশ্রুতিতে ঐ পণ্য/পণ্যগুলির বিক্রি হওয়ার সম্ভাব্যতা বেড়ে যায়। একটি পরিসংখ্যান থেকে দেখা যায় একজন ফ্রিল্যান্সার ইমেইল মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে মাসে ৫০ হাজার থেকে ৩ লক্ষ টাকা পর্যন্ত উপার্জন করতে পারেন। আপনি নিজেও ইমেইল মার্কেটিং করার মাধ্যমে নিজের ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার গড়ে তুলতে পারেন। তো চলুন জেনে নেওয়া যাক ইমেইল মার্কেটিংয়ের আদ্যোপান্ত।  

 

ইমেইল মার্কেটিং কি

ইমেইল মার্কেটিং খুবই সহজ একটি কাজ। সহজভাবে বলতে গেলে কাউকে ইমেইল করা। ইমেইল মার্কেটিংয়ের ক্ষেত্রে আমাদেরকে কোন একটি প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন পণ্য সম্পর্কে কাস্টমারদের ইমেইল করতে হবে। ফলে কাস্টমার বা গ্রাহকগণ তাদের ইনবক্সে মেইলগুলি পেয়ে যাবে। ফলে গ্রাহকগণ ঐ পণ্যগুলি সম্পর্কে জানতে পারবে এবং হয়তো কেউ কেউ এ পণ্যগুলি কিনতে আগ্রহী হবে। এটির ফলে ঐ কোম্পানীর পণ্য বিক্রির হওয়ার সুযোগ আরো বাড়বে।

ইমেইল মার্কেটিং সম্পর্কে আমরা অনেকেই একটি নেতিবাচক ধারণা পোষণ করে থাকি। আমরা ইমেইল মার্কেটিং বলতে সাধারণত যেটা বুঝি সেটি হচ্ছে মানুষের কাছে স্প্যাম মেসেজ পাঠানো। কিন্তু বিষয়টি মোটেই ওরকম নয়। বরং ইমেইল মার্কেটিং যে কোন কোম্পানীর পণ্যগুলি সম্পর্কে গ্রাহকদের ডিরেক্ট জানানোর একটি কার্যকরী উপায়। আমরা একটি পরিষংখ্যানে দেখতে পাই ২০১১ সালে আমেরিকাতে ইমেইল মার্কেটিংয়ের জন্য ব্যয় করা হয় ১.৫১ বিলিয়ন ডলার। বর্তমানে ইমেইল মার্কেটিংয়ের পেছনে খরচ আরো বেড়েছে। এ খরচের পরিমাণ বর্তমানে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২.৪৮ বিলিয়ন ডলার। আরেকটি তথ্য ইমেইল মার্কেটিংয়ের গুরুত্ব বুঝতে আপনাকে সহায়তা করবে। আর সেটি হচ্ছে অনলাইনে যত বেচাকেনা হয তার ২৪ শতাংশই ইমেইল মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে। সুতরাং বুঝতেই পারছেন ইমেইল মার্কেটিংয়ের গুরুত্ব কতখানি।

ইমেইল মার্কেটিং বর্তমান সময়ে অনেক জনপ্রিয়তা পেয়েছে। অনলাইনে কেনাবেচার বড় একটি নির্ভরতা হয়ে পড়েছে ইমেইল মার্কেটিং। এছাড়াও এফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের ক্ষেত্রেও এটি বেশ কার্যকরী। ইমেইল মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে বিভিন্ন এফিলিয়েট নেটওয়ার্ক থেকে এফিলিয়েশন প্রোডাক্ট সংগ্রহ করার মাধ্যমে অনেকেই বেশ ভালো অংকের অর্থ উপার্জন করছেন। ইমেইল মার্কেটিং খুবই সহজ সাপেক্ষ একটি কাজ। যার অনলাইন কাজ সম্পর্কে অল্প বিস্তর ধারণা আছে সেও ইমেইল মার্কেটিংয়ের কাজ করতে পারবে। একাজটি শুরু করার জন্য আপনি অভিজ্ঞ কারো নিকট থেকে সহায়তা নিতে পারেন।

ইমেইল মার্কেটিং কেন করা হয়

অনলাইনে বিভিন্ন কেনাবেচার সাইট রয়েছে। যেগুলি থেকে গ্রাহকগণ বিভিন্ন পণ্য কিনে থাকে। যেমন ‍amazon.com অনলাইন শপিংয়ের জন্য একটি তীর্থস্থান। কিন্তু সবাই তো আর প্রত্যেকদিনই আমাজনের সাইট ভিজিট করছে না। তো আমাজন সাইটে নতুন কোন প্রোডাক্ট আসলে যে ব্যক্তি ঐ সাইটে ভিজিট করছে না সে তো ঐ প্রোডাক্ট সম্পর্কে জানতে পারছি না। সুতরাং যদি আমাজন সাইট কতৃপক্ষ ঐ ব্যক্তিটিকে তাদের প্রোডাক্ট সম্পর্কে না জানায় তাহলে তারা একজন সম্ভাব্য ক্রেতাকে হারাল। সুতরাং আমাজান যদি তাদের নতুন প্রোডাক্ট সম্পর্কে ইমেইল মার্কেটিং করে থাকে তাহলে ঐ ব্যক্তি মেইলটি তার ইনবক্সে পেয়ে যাবে। ফলে সে প্রোডাক্টটি সম্পর্কে জানতে পারবে। যদি তার প্রোডাক্টটি পছন্দ হয় তাহলে সে এটি কেনার ব্যাপারে আগ্রহী হতে পারে অথবা কাউকে প্রোডাক্টটি সম্পর্কে জানাতে পারে। ফলে আমাজনের সাইট থেকে প্রোডাক্ট বিক্রি হওয়ার সম্ভাব্যতা বেড়ে যাবে। সুতরাং ইমেইল মার্কেটিংয়ের গুরুত্ব কতখানি সেটি এ উদাহরণ থেকেই পরিষ্কার হয়ে যাচ্ছে।

ইমেইল মার্কেটিংয়ের কাজের ধরণ

ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসে কোন একটি নির্দিষ্ট কাজের চাহিদা কখনও বাড়ে আবার কখনওবা সেটি কমে যায়। অথবা কোন একটি নির্দিষ্ট কাজ পাওয়ার ক্ষেত্রে প্রতিযোগীতা এত বৃদ্ধি পায় যে কাজ পাওয়াটা খুবই কঠিন হয়ে পড়ে। তবে এ মুহূর্তে নতুন ফ্রিল্যান্সারদের জন্যে আশার আলো হয়ে দাঁড়িয়েছে ইমেইল মার্কেটিং। ইমেইল মার্কেটিং হতে যাচ্ছে আগামী দিনের অনলাইন আয়ের একটি বিশাল সেক্টর। ফ্রিল্যান্সারগণ ইমেইল মার্কেটিংয়ের ক্ষেত্রে কয়েক ধরনের কাজ করতে পারেন।

১. বায়ারের জন্য ইমেইলের তালিকা তৈরী করে দিতে পারেন।

২. ইমেইল মার্কেটিংয়ের টেমপ্লেট তৈরী করে সেটি বিক্রি করতে পারেন।

৩. বায়ারের জন্য তার প্রোডাক্ট বা বিষয়বস্তুর উপর ইমেইল মার্কেটিং করা।

৪. এছাড়াও একজন ফ্রিল্যান্সার লোকাল মার্কেটের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের জন্য ইমেইল মার্কেটিং করতে পারেন্।

ইমেইল মার্কেটিং টেমপ্লেট তৈরী করুন, আয়ের পরিমাণ বৃদ্ধি করুন

ইমেইল মার্কেটিং আপনার জন্য নানামুখী আয়ের পথ খুলে দিবে। আপনি যদি ইমেইল মার্কেটিং টেমপ্লেট তৈরী করতে পারেন তাহলে এটি বায়ারের কাছে বিক্রি করে আয় করার সুযোগ তো থাকছেই সাথে আরো রয়েছে themeforest সাইটেও টেমপ্লেট বিক্রি করে আয়ের সুযোগ। আপনার ইমেইল মার্কেটিংয়ের টেমপ্লেট ডিজাইনটি যত সুন্দর হবে এটির বিক্রয় মূল্য তত বৃদ্ধি পাবে। সাধারণত একটি ইমেইল টেমপ্লেট ৩০-৪৫ ডলার পর্যন্ত বিক্রি হয়। সুতরাং বুঝতেই পারছেন ইমেইল মার্কেটিং শুধুমাত্র আপনাকে ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটেই নয় বরং অনলাইনের অন্যান্য মাধ্যমের আয়ের দ্বারও আপনার জন্য প্রসারিত করবে।

ওডেস্কে ইমেইল মার্কেটিংয়ের অসংখ্য কাজ প্রত্যেকদিন জমা হচ্ছে। অনেক নতুন ফ্রিল্যান্সার ইমেইল মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সিং শুরু করছে। সুতরাং আপনিও কাজটি ভালভাবে শিখে নিয়ে শুরু করতে পারেন আপনার ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার। তো বন্ধুগণ চলুন দেখে নেওয়া যাক ওডেস্কে পোস্টকৃত একটি ইমেইল মার্কেটিং জব।

1

উপরের চিত্রে বায়ার তার কাজের একটি সংক্ষিপ্ত বর্ণনা দিয়েছেন এবং কাজটির জন্য তিনি কি ধরনের লোক চান সেটিও উল্লেখ করেছেন।

2

এ চিত্রটিতে আমরা দেখতে পাচ্ছি ইমেইল মার্কেটিংয়ের এ কাজটি করার জন্য ১৭ জন ফ্রিল্যান্সার বিড দিয়েছে।

ইমেইল মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে আয়ের পরিমাণ

পূর্বেই জেনেছেন ইমেইল মার্কেটিংয়ে কাজের পরিধি ব্যাপক। যতই দিন এগোচ্ছে ততই ইমেইল মার্কেটিংয়ের চাহিদা বাড়ছে। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান তাদের পণ্যের প্রসারের জন্য ইমেইল মার্কেটিংয়ের প্রতি গুরুত্বারোপ করছে। ফলে ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসগুলিতে কাজের পরিমানও বেড়েই চলছে। আসলে ইমেইল মার্কেটিং একটি সৃজনশীল কাজ। আপনি যে কোন পণ্যের বিবরণ যত সুন্দরভাবে ক্রেতার কাছে উপস্থাপন করতে পারবেন তত পণ্যটির বিক্রির সম্ভাব্যতা বেড়ে যাবে।

ফ্রিল্যান্সারদের জন্য খুশির সংবাদ হচ্ছে ওডেস্কে ইমেইল মার্কেটিংয়ের কাজের পরিমাণ খুব দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে। একটি পরিসংখ্যানে দেখা যায় ওডেস্কে বিদ্যমান কাজের শতকরা ১৫ ভাগই ইমেইল মার্কেটিংয়ের কাজ। ফ্রিল্যান্সারগণ বর্তমানে ঘন্টায় ৮-১০ ডলারে ইমেইল মার্কেটিংয়ের কাজ করছে। নতুন ফ্রিল্যান্সারগণ ঘন্টায় ৪-৫ ডলারে কাজ করছে। কাজের অভিজ্ঞতা বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে আপনি আপনার কাজের মূল্য বাড়িয়ে নিতে পারবেন।

এছাড়াও যদি আপনি ইমেইল মার্কেটিংয়ের টেমপ্লেট ডিজাইন করতে পারেন তাহলে আপনার আয়ের পরিমাণ আরো বৃদ্ধি পাবে। সাধারণত একজন ইমেইল মার্কেটার মাসে ২৫০০০ থেকে ১ লক্ষ টাকা পর্যন্ত উপার্জন করতে পারেন। তো বন্ধুগণ আর দেরি কেন, আপনিও শুরু করতে পারেন ইমেইল মার্কেটিংয়ের কাজ। এটির মাধ্যমেই আপনি গড়ে তুলতে পারেন আপনার ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার। (2378)

Share Button
  

FavoriteLoadingপ্রিয় যুক্ত করুন

এলার্ম বিভাগঃ ফ্রিলান্সিং

এলার্ম ট্যাগ সমূহঃ > >

Ads by Techalarm tAds

এলার্মেন্ট করুন

You must be Logged in to post comment.

© টেকএলার্মবিডি।সবচেয়ে বড় বাংলা টিউটোরিয়াল এবং ব্লগ | সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত

জেগে উঠো প্রযুক্তি ডাকছে হাতছানি দিয়ে!!!


Facebook Icon