পৃথিবীর বাইরে সবচাইতে বাসযোগ্য স্থান শনির উপগ্রহ এনসেলাডাস | টেকএলার্মবিডি।সবচেয়ে বড় বাংলা টিউটোরিয়াল এবং ব্লগ
Profile
আমি টেকনোলজি

মোট এলার্ম : 119 টি

আমি টেকনোলজি

আমার এলার্ম পাতা »

» আমার ওয়েবসাইট :

» আমার ফেসবুক :

» আমার টুইটার পাতা :


স্পন্সরড এলার্ম



পৃথিবীর বাইরে সবচাইতে বাসযোগ্য স্থান শনির উপগ্রহ এনসেলাডাস
FavoriteLoadingপ্রিয় যুক্ত করুন
Share Button

 

 শনি গ্রহের ষষ্ঠ বৃহত্তম উপগ্রহ এনসেলাডাসে বরফ আচ্ছাদিত ভূ-পৃষ্ঠের নিচে বিপুল পরিমাণ পানির সন্ধান পাওয়া গেছে। শনি গ্রহে অনুসন্ধানে যাওয়া মহাকাশযান ক্যাসিনি-হাইগেনসের সংগৃহীত তথ্য-প্রমাণ থেকে গ্রহটিতে পানির অস্তিত্বের সন্ধান পাওয়ার এ খবর জানিয়েছে মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা। নভোযান ক্যাসিনির পাঠানো তথ্যানুসারে জানা যায়, এনসেলাডাস উপগ্রহের বরফ আচ্ছাদিত ভূত্বকের ৪০ কিলোমিটার নিচে এই পানি রয়েছে। গবেষক দলের সদস্যরা এই তথ্য থেকে ৫শ’ কিলোমিটার ব্যাস বিশিষ্ট এই উপগ্রহকে পৃথিবীর বাইরে সবচেয় বেশি প্রাণের বাসযোগ্য বলে মনে করছেন।

পানির সন্ধান পাওয়া অনুসন্ধানি মহাকাশযান ক্যাসিনি-হাইগেনস নাসা, এসা ও ইতালিয়ান মহাকাশ সংস্থার যৌথ উদ্যোগে পাঠানো হয়েছিল। ২০০৪ সাল থেকে এই যানটি শনি গ্রহের বলয়ে অবস্থান করে বিজ্ঞানীদের নতুন নতুন তথ্য জানিয়ে আসছে।

অধ্যাপক লুসিয়ানো আইস এই আবিষ্কার প্রসঙ্গে বলেন, ‘সংগৃহীত তথ্য-প্রমাণ থেকে আমরা ধারণা করছি এনসেলাডাসের মজুদ পানির পরিমাণ উত্তর আমেরিকার লেক সুপিরিয়রের সমান।’ লেক সুপিরিয়র পৃথিবীর তৃতীয় বৃহত্তম ও উত্তর আমেরিকার সর্ববৃহৎ সুপেয় পানির উৎস।

শনির এই উপগ্রহের দক্ষিণ মেরু অঞ্চলে বরফের অস্তিত্ব আছে বুঝতে পারার পর থেকেই বিজ্ঞানীরা উৎসাহের সঙ্গে সেখানে পানির অস্তিত্ব আবিষ্কারে কাজ করছিলেন। আর মাটির নিচে পাওয়া ‘মহাসমুদ্র সমান’ জলের অনুসন্ধান থেকে এই উপগ্রহটি প্রাণের জন্য বাসযোগ্য বলে মনে করছেন নাসার বিজ্ঞানীরা। বিজ্ঞানীরা ক্যাসিনি প্রোবের মাধ্যমে উপগ্রহটিতে আবিষ্কার করা পানির মহাকর্ষীয় সঙ্কেত পাওয়ার চেষ্টা করছেন।

সূত্র- বিবিসি

(579)

Share Button
  

FavoriteLoadingপ্রিয় যুক্ত করুন

এলার্ম বিভাগঃ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

এলার্ম ট্যাগ সমূহঃ > >

Ads by Techalarm tAds

এলার্মেন্ট করুন

You must be Logged in to post comment.

© টেকএলার্মবিডি।সবচেয়ে বড় বাংলা টিউটোরিয়াল এবং ব্লগ | সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত

জেগে উঠো প্রযুক্তি ডাকছে হাতছানি দিয়ে!!!


Facebook Icon